২১ এপ্রিল, ২০২৪
সম্পাদকীয়

বাইরে থেকে সুখ খোঁজা নয়

অন্তরের শক্তিতে বলীয়ান বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশ ফিনল্যান্ডের মানুষ
Helsinki tram Europe Finland Bengali News
হেলসিঙ্কি, ফিনল্যান্ড
srirupa-banerjee
শ্রীরূপা বন্দ্যোপাধ্যায়
প্রকাশিত: ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১
শেষ আপডেট: ৪ এপ্রিল ২০২১ ৬:০৫

বছরের অর্ধেকেরও বেশি সময় ধরে চলে শীতের দাপট৷ তাপমাত্রা কখনও কখনও নেমে যায় শূন্যের কুড়ি ডিগ্রিরও নিচে৷ টানা দু’মাস ধরে দেখা মেলে না সূর্যের৷ কিন্তু তাতে কী! এত প্রতিকূলতার মাঝেও বারবার তিনবার বিশ্বের সুখীতম দেশের খেতাব ধরে রেখেছে ফিনল্যান্ড৷

২০১২ সাল থেকে প্রতি বছর ‘ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট’ বা ‘বিশ্ব সুখ রিপোর্ট’ প্রকাশ করে রাষ্ট্রসংঘ৷৷ বিভিন্ন দেশে মানুষের গড় আয়ু কত, জীবনের নানা বিষয় বেছে নেওয়ার স্বাধীনতা আছে কিনা তাঁদের, মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন বা জিডিপি বৃদ্ধির হার কত, দেশে দুর্নীতির হাল কেমন ইত্যাদি বিষয়ে সমীক্ষা চালানো হয়৷ পাশাপাশি, মানুষ নিজেদের জীবনে সুখী কি না– তাও প্রশ্ন করে জেনে নেন সমীক্ষকরা৷ এরই ভিত্তিতে তৈরি হওয়া রিপোর্টে ২০১৮ থেকে ২০২০– পরপর তিন বছর পৃথিবীর সবচেয়ে সুখী দেশ বলে চিহ্নিত হয়েছে ফিনল্যান্ড৷

crowd snow helsinki Finland Bengali News
হেলসিঙ্কি, ফিনল্যান্ড

কল্পনা নয়, বাস্তব

আচ্ছা, একবার ভাবুন তো যদি এমন হত– দেশে কোনও মানুষেরই খাওয়া–পরার অভাব নেই৷ রোজগার কম হলে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে হাসিমুখে দাঁড়িয়ে আছে সরকার৷ অসুখ–বিসুখে বিনামূল্যে চিকিৎসা পাওয়া নিশ্চিত৷ সন্তানের পড়াশোনার জন্যও চিন্তা নেই, প্রাথমিক থেকে বিশ্ববিদ্যালয় স্তর পর্যন্ত বিনামূল্যে উন্নত মানের শিক্ষার ব্যবস্থা আছে দেশে৷ এমনকি কর্মক্ষেত্রেও নেই বসের চোখরাঙানি৷ ভাবছেন– আকাশ–কুসুম কল্পনা, এমন আবার হয় নাকি! ফিনল্যান্ডে কিন্তু এমনটাই হয়৷

সরকারের আছে হাজারো জনকল্যাণমুখী পরিকল্পনা

ফিনল্যান্ড দীর্ঘদিন ধরেই বিশ্বের দরবারে তার জনকল্যাণমুখী পরিকল্পনাগুলির জন্য সুপরিচিত৷ দেশটিতে আছে গণতন্ত্রের সুগঠিত একটি কাঠামো৷ দুর্নীতি প্রায় নেই বললেই চলে৷ জীবনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার স্বাধীনতা আছে মানুষের৷ কর–ব্যবস্থা ও সম্পদের বন্টন এমনই যাতে দেশের সমস্ত মানুষকে বিনামূল্যে চিকিৎসার সুযোগ দেওয়া যায়, ব্যবস্থা করা যায় সর্বোচ্চ স্তর পর্যন্ত বিনামূল্যে শিক্ষার৷

কাজের ক্ষেত্রে ফিনল্যান্ড একটি চমৎকার মডেল তৈরি করেছে৷ সেখানে সংস্থার কর্তৃপক্ষ আর কর্মচারীদের মধ্যে দুস্তর ব্যবধান নেই৷ বরং কর্মচারীরা নিজেরাই জড়িয়ে থাকেন সংস্থার ভালোমন্দের সাথে৷ ফলে একদিকে যেমন উৎপাদন বিপুল বাড়ে, তেমনই কাজ করে কর্মীরা বসের চোখরাঙানির বদলে পান অসীম পরিতৃপ্তি৷

Northern lights Finnish Lapland Bengali News
ফিনিশ ল্যাপল্যান্ডের একটি ছোট্ট গ্রাম ইল্লসজারভিতে জমে থাকা মার্চের রাতে সুমেরু প্রভা

ফিনল্যান্ডে নারী–পুরুষের মধ্যে কোনও বেতন–বৈষম্য নেই৷ শুধু তাই নয়, বিশ্বের মধ্যে এই একটিমাত্র দেশেই বোধহয়, স্কুল–পড়ুয়া সন্তানদের সঙ্গে মায়েদের তুলনায় বেশি করে সময় কাটান বাবারা৷ এই ঘটনা নিঃসন্দেহে ফিনল্যান্ডের প্রগতিশীল চরিত্রটিকে তুলে ধরে৷ বাস্তবে গোটা সমাজ জুড়েই মানুষে মানুষে বৈষম্যের বড় অভাব এই দেশটিতে৷ দেশের দরিদ্রতম মানুষটিও যাতে কোনও দিক থেকে কোনও ভাবে বঞ্চিত না হন, সে ব্যাপারে ফিনল্যান্ডের সরকার সদা সতর্ক৷

কিন্তু শুধুই কি সরকার, নাকি আছে অন্য কোনও রহস্য?

সরকারের ভূমিকা তো আছেই৷ কিন্তু সুখী দেশ হিসাবে নিজেদের খুশি ধরে রাখার পিছনে কাজ করে চলেছে ফিনল্যান্ডের মানুষের অনুপম এক চরিত্রবৈশিষ্ট্য, যা তাঁদের সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ৷ ফিনিশীয়দের আছে এক অদম্য সত্তা যা যে কোনও বাধা–বিপত্তি, প্রতিকূলতা মোকাবিলায় তৈরি৷ ফিনিশীয় ভাষায় এই সত্তা পরিচিত ‘সিসু’(sisu) নামে৷ ‘সিসু’বলে বলীয়ান ফিনল্যান্ডের মানুষ সমস্যার সামনে ভেঙে পড়েন না, কোমর বেঁধে লেগে যান তার মোকাবিলা করতে৷ হৃদয়ের এই শক্তির জোরেই তাঁরা গড়ে তুলেছেন দুনিয়ার সবচেয়ে সুখী দেশটিকে৷

Lake Summanen, Saarijärvi, Finland Bengali News
সিমমানেন লেক, সারিজারভি, ফিনল্যান্ড

ভোগের মধ্যে নয়, জ্ঞানের গভীরে গিয়ে আনন্দ খোঁজা

আধুনিক ভোগসর্বস্ব পৃথিবীর বাসিন্দা হয়েও ফিনল্যান্ডের মানুষ অনবরত জিনিসপত্র কেনাকাটায় বিশ্বাসী নন৷ তাঁদের প্রয়োজন সীমিত৷ বরং তাঁরা বেশি ভালবাসেন বইপত্র পড়তে, জ্ঞানজগতে বিচরণ করতে৷ ৫৫ লক্ষ মানুষের এই দেশে আছে অগুনতি লাইব্রেরি৷ সারা বছরে সেখানে প্রায় ৭ কোটি বইয়ের আদানপ্রদান হয়৷ লোকদেখানো জাঁকজমকের জৌলুষও পছন্দ নয় তাঁদের৷ ‘সিসু’ সংসৃক্তি তাঁদের শিখিয়েছে নম্র হতে, বিনয়ী হতে৷ তাই সমাজমাধ্যমে প্রতি মুহূর্তে নিজের রঙ–করা ছবি মেলে ধরার বদলে ফিনল্যান্ডের মানুষ তৃপ্তি খুঁজতে ডুব দেন মনের গহীনে৷

"ভালো মন্দ যাহাই আসুক/সত্যেরে লও সহজে"

‘সিসু’ সংসৃক্তির অধিকারী ফিনল্যান্ডের মানুষের কাছে অঢেল অর্থ উপার্জনই জীবনের ধ্রুবতারা নয়৷ নিজেদের জন্য ভীষণ উঁচু কোনও টার্গেটও স্থির করে রাখেন না তাঁরা৷ জীবন যেভাবে সামনে আসে, সে ভাবেই তাকে গ্রহণ করার পক্ষপাতী এই মানুষগুলি৷ এটাই তাঁদের সুখী হওয়ার মূলমন্ত্র৷ সুখের সন্ধানে হন্যে হয়ে ঘুরে বেড়ানো নয়, সমস্যার সামনে হাঁটু মুড়ে বসে পড়াও নয়, জীবনকে, জীবনের সত্যকে সহজ ভাবে নিতে শিখেছেন ফিনিশীয়রা৷

Finland unique lake road Bengali News
আসিক্কালা, ফিনল্যান্ড

মনেরে তাই কহ যে
ভালো মন্দ যাহাই আসুক
সত্যেরে লও সহজে

– কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের ‘বোঝাপড়া’ কবিতার এই পংক্তিগুলি ফিনল্যান্ডের মানুষই বোধহয় সত্যিকারের অর্থে গ্রহণ করেছেন নিজেদের জীবনে এবং খুঁজে পেয়েছেন সুখে থাকার সেই গোপন চাবিকাঠিটি৷

আরও খবর

বিজ্ঞাপন দিন

[email protected]

৩০ মে

তাঁর সৃষ্টিতে নারীই হয়ে ওঠেন মূল 'প্রটাগোনিস্ট', চরিত্র নির্মাণে ছক ভেঙেছিলেন ঋতুপর্ণ ঘোষ

Rituparno Ghosh
৯ মে

আজ বাঙালির 'রবি-পুজো', জেনে নিন কবির জীবনের নানা অজানা কাহিনী

Rabindranath Thakur 2
১৪ এপ্রিল

সম্রাট আকবরের হাত ধরেই বাংলায় এসেছে নববর্ষ, জানুন বিশদে

Bengali Puja
২৬ জানুয়ারি

ভারতের ৭৪ তম প্রজাতন্ত্র দিবসে , বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত হবেন মিশরের রাষ্ট্রপতি

Indian national flag
১৩ অক্টোবর

আগামী ২১ অক্টোবর থেকে ২৫ অক্টোবর, আলোতে এবং ভালোতে ভরে উঠবে পরিবেশ

Diya
৫ সেপ্টেম্বর

২৬ সেপ্টেম্বর ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের জন্মদিবসই হোক জাতীয় শিক্ষক দিবস, দাবি বাংলাপক্ষের

Teachers' Day Sarvepalli Radhakrishnan
৩ সেপ্টেম্বর

তিনিই মহানায়ক, নারী মনোহরণের ব্রান্ড অ্যাম্বাস্যাডার উত্তমকুমার

Uttam kumar 3
৮ আগস্ট

১৯৪১ সালের ৭ অগস্ট অমৃতলোকে বিলীন হয়ে যান বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

Rabindranath Thakur 2
১৮ জুন

যেখানে ইতিহাস কথা বলে, যেখানে ইতিহাস উচ্চারিত হয়.... ইতিহাস আজ সেখানেই "অতীত!" উত্তর খুঁজতে "পরিদর্শক" এর প্রতিনিধি

Netaji Bhavan exhibition
৯ মে

আজ 'রবি'বার, ঠাকুরের আরাধনায় মাতবেন তাঁর সাধকেরা

Rabindranath Thakur 2
৩০ মার্চ

হুগলি জেলার ইমামবাড়া, বিশাল স্থপতি ও ইতিহাস নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে গঙ্গার তীরে। পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম বিস্ময়কর ঘড়ির কথা আজও লোকের মুখে মুখে।

Hooghly Imambara history
১৮ মার্চ

"ধর্ম যতদিন দুঃখী মানুষকে বেঁচে থাকার সাহস দেয়, ততদিন রাস্তা নিয়ে কারও সঙ্গে তার ঝগড়া থাকে না" বীরেন্দ্র চট্টোপাধ্যায়

Hindu religion shiva
২১ ফেব্রুয়ারি

ভাষা হোক মুক্ত, স্বাধীন, হৃদয়স্পর্শী! প্রতিটি ভাষার প্রতি থাকুক সমান আনুগত্য

21 February