কলকাতা

পরিবারতন্ত্র নিয়ে গেরুয়া শিবিরকে সপাটে উত্তর 'ভাইপো' অভিষেকের

তৃণমূলের সার্বিক পরিকল্পনার কিছুটা আভাস দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

গোটা নির্বাচনপর্ব জুড়ে এবার একদিকে যখন তৃণমূল স্লোগান তুলেছিল "খেলা হবে", পাল্টা বিজেপির স্লোগান ছিল "পিসি ভাইপোর সরকার, আর নেই দরকার"। পরিবারতন্ত্র, 'পিসির ভাইপো'- এই ধরনের সমস্ত অরাজনৈতিক আক্রমণের মুখে পড়তে হয়েছিল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Abhisekh Banarjee)। তবে বিজেপির (BJP) যাবতীয় স্লোগানকে নস্যাৎ করে বাংলায় আবার বিপুল জনসমর্থন নিয়ে ফিরে এসেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) নেতৃত্বে তৃণমূল সরকার (Trinamool Congress)। ইতিমধ্যেই তৃণমূলের সর্বভারতীয় সম্পাদকের দায়িত্ব পেয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপরেই সোমবার ভিনরাজ্যে ক্ষমতা দখল নিয়ে তৃণমূলের সার্বিক পরিকল্পনার কিছুটা আভাস দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন সোমবার সাংবাদিক বৈঠক করে তারই জবাব দিলেন অভিষেক। তিনি বলেন, "একদিকে বিজেপি বলছে বাংলা ছাড়া অন্য রাজ্যে তৃণমূলের কিছু নেই, আবার অন্যদিকে আমাকে কেন সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক কেন করা হল সেই প্রশ্ন তুলছেন। আপনারা কেন্দ্রীয় সরকার চালাচ্ছেন, কেন একটা বিল আনছেন না, একটি পরিবার থেকে একজনই রাজনীতি করতে পারবেন। পরিবারতন্ত্র নিয়ে কথা বলছেন, বিল পাশ করুন, আমি পদ ছেড়ে দেব। যাদের ছেলে এমএলএ, এমপি, মিনিস্টার তারা পরিবারতন্ত্রের কথা বলছেন। তোমরা নিজেদের ভন্ডামিকে সামনে আনছ।"

অভিষেকের দৃঢ় লক্ষ, "যে দায়িত্ব পেয়েছি, তাতে আগামী দিনে দলের আরও বিস্তারে কাজ করব।দলকে সর্বোচ্চ স্তরে নিয়ে যাব। লিখে রাখুন, আগামী কুড়ি বছর রাজ্য প্রশাসনের কোনও পদ আমি নেব না।"

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় আরও জানিয়েছেন, "মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সংগ্রামের কথা দেশের প্রতিটি কোণায় আমরা পৌঁছে দেব। এমন কোনও রাজ্য নেই যেখান থেকে মানুষ ধন্যবাদ জানাননি। আমরা সকলের কাছে কৃতজ্ঞ। বাংলা দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রায় ১ লক্ষ মেইল এসেছে। দেশকে মোদী অমিত শাহের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য আবেদন করছেন মানুষ। আমি ৪৮ ঘন্টা হল দায়িত্ব পেয়েছি। তবে দু'তিন সপ্তাহ বা একমাসের মধ্যেই আমরা জানিয়ে দিতে পারব তৃণমূল কী করতে চাইছে। কোন রাজ্যগুলিতে আমরা যেতে চাইছি। কীভাবে আমরা দলকে সম্প্রসারণ করতে চাইছি। আমরা যেকোনও রাজ্যেই এবার যাই না কেন, সে ছোট রাজ্য হতে পারে, বা বড় রাজ্য হতে পারে, আমরা শুধু ভোটে লড়ার জন্য যাব না। আমরা খালি একটা দুটো বিধায়ক পাওয়ার জন্য যাব না। আমরা ভোট শেয়ার করার জন্য শুধু যাব না। যদি যাই তবে সেই রাজ্যকে জেতার জন্য যাব। আমরা বিরোধী দলের মর্যাদা পাওয়ার জন্য যাব না। সেটা উত্তর, দক্ষিণ ভারত, কিংবা উত্তর পূর্ব ভারত যে জায়গাই হোক না কেন।"

আরও খবর

বিজ্ঞাপন দিন

[email protected]

dilip ghosh 2
বাংলা দখলের লড়াইয়ে কেন মুখ থুবড়ে পড়ল বিজেপি? বিশ্লেষণ হবে বৈঠকে
২৯জুন কলকাতায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে রাজ্য বিজেপির …
kids class room play school
কোভিডের তৃতীয় ঢেউ মোকাবিলায় রাজ্যে ১০ সদস্যের বিশেষজ্ঞ টিম গঠন
তৃতীয় ঢেউ মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের প্রস্তুতি তুঙ্গে
Mamata Banerjee new3
স্কিল ডেভেলপমেন্টে দেশের মধ্যে প্রথম স্থানে বাংলা
উন্নততর প্রশিক্ষণ ও কর্মসংস্থানের জন্য বিশেষ কমিটি …
Fire fighters
বড়বাজারের গুদামে বিধ্বংসী আগুন, ঘটনাস্থলে উপস্থিত সুজিত বসু ও ফিরহাদ হাকিম
বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোন হতাহতের …
Tmc vs bjp 2
অভিভাবক বিজেপি করে, তাই কন্যাশ্রী বাতিল হতে বসেছে ৫ ছাত্রীর
তৃণমূল পরিচালিত পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে স্থানীয় …
Mamata Banerjee nabanna new
পুজোর আগেই মোট ২৪,৫০০ জন শিক্ষক নিয়োগ, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর
সোমবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে এই ঘোষণা করেন …
gangaprasad join tmc
উত্তরবঙ্গ বিজেপিতে ভাঙন! তৃণমূলে যোগ দিলেন বিজেপি নেতা গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা
আলিপুরদুয়ার বিজেপি জেলা সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা ৮ …
dilip ghosh mamata banerjee
রাজ্যকে আফগান, সিরিয়া বানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী : দিলীপ ঘোষ
রাজ্য দিনে দিনে উগ্রপন্থীদের গড় হয়ে যাচ্ছে, …
Ram mandir ayodhya
প্রতিবাদ জারি থাকলেও রামমন্দির নিয়ে আদালতে যেতে নারাজ কংগ্রেস
উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের আগে ফের রামমন্দির ট্রাস্টের …