২১ এপ্রিল, ২০২৪
সম্পাদকীয়

রাজ্যের দাঁড় ও পাল

টুইটারের সাথে যত মিত্রোঁ-তা, তার 'ন্যূনতম' ভগ্নাংশও কি রাজ্যের সাথে হতে পারেনা?
mamata jagdeep Bengali News
-
koustav-chatterjee
কৌস্তভ চ্যাটার্জী
প্রকাশিত: ২ জুলাই ২০২১
শেষ আপডেট: ২ জুলাই ২০২১ ১২:৩২

রুটিনমাফিক শিরোনামে আসলে জনতা জনার্দনের কৌতূহলের বিষয় হওয়া স্বাভাবিক। তা আজ একটু কৌতূহল নিবারণ করা যাক। প্রথমেই প্রশ্ন তোলা যাক, উনি কি এমন করেন যাতে বারবার চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকেন? সাংবিধানিক পদে আসীন থেকে সংবিধানসম্মত কাজ করবেন, এটাই তো কাম্য। কেন্দ্র আর রাজ্য সরকারের মধ্যে সমন্বয় সাধন করবেন, ভালো কথা। সবই যখন স্বাভাবিক, তাহলে রঙ চড়াচ্ছে কে? তাহলে কি রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার বিষয়ে প্রশ্ন তোলার ফলে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসা রাজ্য সরকারের গাত্রদাহই বারবার চোখে পড়ছে? ঠিক যেমন চোখে পড়েছে বেশ কিছু টুইট?

এখানেই শুরু যাবতীয় দ্বিপাক্ষিক চিঠি চালাচালি। ভোট পরবর্তী হিংসা থেকে শুরু করে পুলিশের ভূমিকা - সবেতেই প্রশ্নচিহ্ন রেখেছেন মনোনীত মাননীয় রাজ্যপাল মহাশয়। এ রাজ্যে নিয়োজিত হওয়ার দু বছরের মধ্যে অতি সক্রিয়ভাবে প্রায় চার হাজার টুইট দেগেছেন রাজ্য সরকারের 'ব্যর্থতা' চিহ্নিত করে। অন্যদিকে রাজ্যও থমকে না থেকে প্রশ্ন তোলে তাঁর পদের অবস্থানের বিষয়ে: প্রশাসনিক না রাজনৈতিক? এখন এই দুইয়ের মাঝে চলে কিছু শাসক-বিরোধী তরজা, কিছু ঘন্টাখানেক সান্ধ্য-শো। কিন্তু কে সঠিক আর কে বেঠিক সেটার সূত্র সমাধান হতে হতে আবার চলে আসে নতুন একটা টুইট।

টুইটের রেশ ধরে বলতে গেলে শুরুতেই বলা যায়, 'ন্যূনতম' ঘটনাকে সর্বাধিক রূপে উপস্থাপিত করতে প্রতিটি ঘটনার সাথে ব্যক্তিগত 'সাংঘাতিক' মতামত সংযোজন এবং 'শুনতে পেলাম' বা 'খবর পাচ্ছি'-দিয়ে শুরু হওয়া বক্তব্যগুলির দ্বারা স্ব-টুইটার টাইমলাইনের সিংহভাগ স্থানপূরণ : এই দুইয়ের খেলায় সত্যিটুকু হাতড়ে পেতে বড়ই বেগ পেতে হয়। প্রশ্ন করলে উত্তর দেওয়া (পড়ুন আক্রমণ করলে প্রতি-আক্রমণ করা) রাজ্য সরকারেরও দায়িত্বের মধ্যেই পড়ে, কিন্তু সেই উত্তরের ভাষাও কি মাচা-সংস্কৃতির সাথে কোনো তফাত রাখবেনা? এখন, সমস্ত অ-বিজেপি রাজ্যগুলির সাথে সেখানকার মনোনীত রাজ্যপালদের সংঘাতের গুচ্ছ গুচ্ছ নিদর্শন তুলে ধরে রাজ্যপালকে প্রশাসনিক কেন্দ্র নয়, বরং রাজনৈতিক কেন্দ্রের পৃষ্ঠপোষক প্রমাণ করতে এবং সর্বোপরি তার পদত্যাগ চাওয়ার দৌড়ে এরাজ্য অনেকটা এগিয়েই থাকে। তাই আবারো প্রশ্ন ওঠে, 'পরিবর্তন'-কামী রাজ্যপাল কি নিরপেক্ষ? আবারও আগের মতোই উত্তরের সুলুক সন্ধান করতে করতে টুইট এসে যায়।

রাজ্য-নাও এর পাল'কে অন্তত তার 'সীমারেখা' মেনে স্ব-ভূমিকা পালন করতেই নির্দেশ দিয়েছে বাবা-র সংবিধান এবং দাঁড় অর্থাৎ প্রধান চালিকাশক্তি মুখ্যমন্ত্রীকে রাজ্য সংক্রান্ত সমস্ত 'সিদ্ধান্ত' নেওয়ার ক্ষেত্রে যে ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে তার কণাভাগও যে রাজ্যপালের কাছে নেই — প্রতিটা বাক্যে 'কনস্টিটিউশন' আওড়েও তা থেকে বিস্মৃত কেমনে! অন্যদিকে রাজ্য-নাওয়ের গতিবিধি সম্পর্কে পালের তোলা সমস্ত প্রশ্নই কি দাঁড়ের চালনাকে বাধাদান করে? সংবিধানের স্বীকৃত ক্ষমতার নিরিখে রাজ্যের বিরুদ্ধে ক্ষমতাসীন রাজ্যপাল কিংবা ক্ষমতাসীন রাজ্যপালের বিরুদ্ধে রাজ্য, কাঁটা মনে হলেও আইনানুগ উপায়ে কাঁটা উপড়ে ফেলার ক্ষমতা কারো কাছেই নেই। তাই মিনিটে মিনিটে কার কোর্টে কে বল ফেলল, সেই নিয়ে মশলাদার শিরোনাম গিলতে থাকা ছাড়া রাজ্যবাসীর আর কোনো বিকল্প নেই।

দু'পক্ষই, নিজেদের পদ ও তার মর্যাদা সম্পর্কে আরও একটু বোধসম্মত আচরণ করলে আজ সবচেয়ে বেশী 'অপমানিত' কে হচ্ছে তার হিসেবটাও কষে ফেলা যেত। যাই হোক, নির্বাচিত আর মনোনীতের মাঝে এই বিরামহীন দ্বন্দ্ব উপভোগ করতে করতে আসুন পরবর্তী টুইটটি পড়ে ফেলা যাক।

আরও খবর

বিজ্ঞাপন দিন

[email protected]

২ নভেম্বর

প্রায় ৪০ মিনিট ধরে রাজ্যপালের সঙ্গে তাঁর কথাবার্তা হয়

Mamata Banana pC
২৮ আগস্ট

পুলিশ আধিকারিকদের সঙ্গে নিয়ে বিস্ফোরণ স্থল ঘুরে দেখেন রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস

fire bomb blast explosion night
২৬ জুলাই

'আওয়ারা', 'বিন্দাস', 'কেলোর কীর্তি'র মত একাধিক ছবি আছে অভিনেত্রী সায়ন্তিকার ঝুলিতে

Sayantika Mamata
৩০ মে

তাঁর সৃষ্টিতে নারীই হয়ে ওঠেন মূল 'প্রটাগোনিস্ট', চরিত্র নির্মাণে ছক ভেঙেছিলেন ঋতুপর্ণ ঘোষ

Rituparno Ghosh
৯ মে

আজ বাঙালির 'রবি-পুজো', জেনে নিন কবির জীবনের নানা অজানা কাহিনী

Rabindranath Thakur 2
১৪ এপ্রিল

সম্রাট আকবরের হাত ধরেই বাংলায় এসেছে নববর্ষ, জানুন বিশদে

Bengali Puja
২৬ জানুয়ারি

ভারতের ৭৪ তম প্রজাতন্ত্র দিবসে , বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত হবেন মিশরের রাষ্ট্রপতি

Indian national flag
৫ জানুয়ারি

১৬ সপ্তাহে চারদিন ডিম-মাংস-ফল খাওয়ানোর পরিকল্পনা করছে স্কুল শিক্ষা দপ্তর

Mid day meal
২৩ নভেম্বর

শপথ গ্রহণ পর্ব মিটতেই সস্ত্রীক রাজ্যপাল রেড রোডে গিয়ে নেতাজির মূর্তিতে মাল্যদান করেন

CV Ananda bose
১৩ অক্টোবর

আগামী ২১ অক্টোবর থেকে ২৫ অক্টোবর, আলোতে এবং ভালোতে ভরে উঠবে পরিবেশ

Diya
৫ সেপ্টেম্বর

২৬ সেপ্টেম্বর ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের জন্মদিবসই হোক জাতীয় শিক্ষক দিবস, দাবি বাংলাপক্ষের

Teachers' Day Sarvepalli Radhakrishnan
৪ সেপ্টেম্বর

৭ সেপ্টেম্বর কন্যাকুমারী থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত ভারতজুড়ে মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে কর্মসূচি পালন করবে কংগ্রেস

Rahul Gandhi new
৩ সেপ্টেম্বর

তিনিই মহানায়ক, নারী মনোহরণের ব্রান্ড অ্যাম্বাস্যাডার উত্তমকুমার

Uttam kumar 3